কৈশোরে রণবীরকে দেখেই বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন আলিয়া!

সিনেমার নায়ককে দেখে অনেক কিশোরী-তরুণীই প্রেমে পড়েন। স্বপ্নে বানিয়ে ফেলেন ভালোবাসার রাজ্য। কিন্তু সেই প্রিয় নায়কের সঙ্গেই বাস্তব জীবনে প্রেম হয়েছে, বিয়ে করেছেন, এমন উদাহরণ হাতে গোনা কয়েকটি।

সেই বিরল উদাহরণের একটি হলো বলিউড তারকা আলিয়া ভাট ও রণবীর কাপুর। দীর্ঘ সাত বছর ধরে তারা প্রেম করছেন। শিগগিরই করবেন বিয়েও। মজার ব্যাপার হলো, রণবীরকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত ছোটবেলাতেই নিয়েছেন আলিয়া।

২০০৭ সালের ঘটনা। রণবীর কাপুরের অভিষেক হয় ‘সাওয়ারিয়া’ সিনেমার মাধ্যমে। মিষ্টি চেহারা দিয়ে পেয়ে যান চকলেটবয় খেতাব। তখন অসংখ্য তরুণীর মন জিতে নেন অভিনেতা। তাদেরই একজন আলিয়া ভাট।

আলিয়ার বয়স তখন মাত্র ১৪ বছর। কিশোরী আলিয়া মনে মনে রণবীরকে ভালোবেসে ফেলেন। সিদ্ধান্ত নেন, বড় হয়ে তাকেই বিয়ে করবেন। সেই স্মৃতি মনে করে সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে আলিয়া বলেন, ‘যখন আমি ওকে পর্দায় প্রথমবার দেখেছিলাম, তখনই ঠিক করে ফেলেছিলাম আমি ওকেই বিয়ে করব। তখন আমি একটা মিষ্টি বাচ্চা মেয়ে ছিলাম। কিন্তু এটা একদম সত্যি কথা।’

বিয়ে নিয়ে প্রায়ই প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় আলিয়াকে। এ প্রসঙ্গে অভিনেত্রী বলেন, ‘আমাকে সকলে একটাই প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করতে থাকেন, তুমি কবে বিয়ে করছো? কবে রণবীরের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসছো? প্রথমত, এটা নিয়ে কারোরই মাথাব্যাথা হওয়া উচিত নয়। দ্বিতীয়ত, যদি সত্যি আমাকে আপনি জিজ্ঞাসা করেন তাহলে বলব আমি নিজের সম্পর্ক নিয়ে খুব শান্তিতে আছি। তাই এই বিষয়টা দয়া করে ছেড়ে দিন, যখন হওয়ার (বিয়ে) তখন তো সেটা ঘটবেই। সেটা ঘটবে আমার আর তার (রণবীর) ইচ্ছা অনুসারে। সেটার নিজস্ব সময় রয়েছে।’

প্রসঙ্গত, আলিয়া ভাট অভিনীত নতুন সিনেমা ‘গাঙ্গুবাঈ কাথিয়াওয়াড়ি’ মুক্তি পাচ্ছে ২৫ ফেব্রুয়ারি। ট্রেলার ও গান প্রকাশের মাধ্যমে ইতোমধ্যে দর্শকের মাঝে ব্যাপক আগ্রহ তৈরি করেছে সিনেমাটি। এখন দেখার পালা, প্রেক্ষাগৃহে কেমন ব্যবসা করে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*