দেশের একমাত্র নদী যেখানে পাওয়া যায় সোনার কণা, সংগ্রহ করতে জড়ো হয় বহু মানুষ

ভারতকে নদীর দেশ বললে কিছু ভুল হবে না। এখানে গঙ্গা, যমুনা, নর্মদার মতো ধর্মীয় গুরুত্বের নদী রয়েছে। যার জলকে অমৃতের মতো মনে করা হয়, এছাড়াও দেশে আরও অসংখ্য নদী রয়েছে। যার নিজস্ব বিশেষত্ব রয়েছে। তবে জেনে অবাক হতে হয় ভারতে এমন একটি নদী আছে যেখানে জলের সাথে সোনার কণাও প্রবাহিত হয়!ঝাড়খণ্ডে প্রবাহিত স্বর্ণরেখা নদী। নাম থেকেই বোঝা যায়, এই নদীর সঙ্গে সোনার সম্পর্ক রয়েছে।

ঝাড়খণ্ডে এমন কিছু জায়গা রয়েছে, যেখানে স্থানীয় আদিবাসীরা খুব ভোরে এই নদীতে যায় এবং সারাদিন বালি ফিল্টার করে সোনার কণা সংগ্রহ করে। জানা যায় যে এই নদীটি ঝাড়খণ্ড, পশ্চিমবঙ্গ এবং ওড়িশা দিয়ে প্রবাহিত হয়। এর উৎস ঝাড়খণ্ডের রাঁচি শহর। এছাড়াও এই নদীর সাথে সম্পর্কিত একটি আশ্চর্যজনক বিষয় হল রাঁচিতে উৎপত্তিস্থল ত্যাগ করার পর এই নদীটি ঐ এলাকার অন্য কোন নদীর সাথে মেশে না বরং স্বর্ণরেখা নদী সরাসরি বঙ্গোপসাগরে পতিত হয়।

মিডিয়া রিপোর্ট অনুসারে, এখানে প্রায়শই গবেষণা করা হচ্ছে। অনেক ভূতাত্ত্বিকরা বিশ্বাস করেন যে এই নদীটি পাথরের মধ্য দিয়ে চলে এবং এর কারণেই এতে সোনার কণা থাকে। এছাড়াও স্বর্ণরেখার উপনদী ‘করকারি’র বালিতেও সোনার কণা পাওয়া যায় এবং বলা হয় স্বর্ণ রেখা নদীতে যে সোনার কণা পাওয়া যায়, সেগুলো কারকরি নদী থেকেই এসেছে।

ভারতে ৪০০ টিরও বেশি ছোট বড় নদী রয়েছে। তার মধ্যে একটি হল স্বর্ণরেখা নদী। স্বর্ণরেখা নদীর বিশেষত্ব হল এই নদীতে জলের সাথে সোনা প্রবাহিত হয়। শতাব্দীর পর শতাব্দী পেরিয়ে গেলেও এই নদীতে কেন বা কোথা থেকে সোনা আসে তা বিজ্ঞানীরা খুঁজে পাননি।

স্বর্ণরেখা নদীতে প্রবাহিত সোনার রহস্য বিজ্ঞানীদের কাছে আজও একটি রহস্য। আজ পর্যন্ত বিজ্ঞানীরা এই নদীতে প্রবাহিত সোনার কারণ বা উৎস খুঁজে পাননি। তবে এটা বলা হয় যেহেতু স্বর্ণরেখা নদীতে সোনা পাওয়া যায় তাই এই নদীর নাম ছিল ‘স্বর্ণরেখা’ নদী।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*