জা’মা’ইয়ের সঙ্গে পা’লা’লেন শা’শু’ড়ি! বি’চার চেয়ে পু’লি’শের দ্বা’রস্থ মে’য়ে

প’রকীয়ার জের। শাশুড়িকে নিয়ে পালালেন যুবক। ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য হাওড়ার (Howrah) লিলুয়ায়। জানা গিয়েছে, পলাতক যুবকের নাম কৃষ্ণ গোপাল দাস।

স্ত্রীকে ফেলে রেখে শাশুড়ি শেফালি দাসের স’ঙ্গে পালিয়েছেন তিনি। লিলুয়া থানায় দায়ের হয়েছে অ’ভিযোগ। লিলুয়া থানা এলাকার জগদীশপুরের বিশ্বা’সপাড়ার বাসিন্দা বাবলা দাস। পেশায় ভ্যানচালক। বাবলা দাসের মেয়ে প্রিয়াঙ্কার স’ঙ্গে বিয়ে হয় কৃষ্ণের। শোনা গিয়েছে, বিয়ের পর থেকে শ্বশুরবাড়িতেই থাকতেন যুবক। তার জেরেই শাশুড়ি শেফালি দাসের স’ঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন।

গত শনিবার শাশুড়ির স’ঙ্গে পালিয়ে যান কৃষ্ণ।মায়ের স’ঙ্গে স্বামীর প’রকীয়ার কথা জানতে পেরে কান্নায় ভেঙে পড়েন প্রিয়াঙ্কা। পরে পরিস্থিতি একটু সামলে উঠে বাবার স’ঙ্গে গিয়ে লিলুয়া থানায় লিখিত অ’ভিযোগ দায়ের করেন। প্রিয়াঙ্কা ও তাঁর বাবার অ’ভিযোগের ভিত্তিতে ত’দন্ত শুরু করে পু’লিশ। ইতিমধ্যেই তল্লা’শি শুরু হয়েছে বলে খবর।

এদিকে শাশুড়ি-জামাইয়ের এই ‘কীর্তি’ জানাজানি হওয়ার পরই গোটা এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ২০১৭ সালে কৃষ্ণ ও প্রিয়াঙ্কার বিয়ে হয়। এলাকাবাসীদের একাংশের মতে, তার কিছুদিন পর থেকেই শাশুড়ির স’ঙ্গে কৃষ্ণের প্রেমের সূত্রপাত। প্রিয়াঙ্কার অ’ভিযোগ, ছোট ছোট কারণে তাঁর উপরে অত্যাচার চালাতেন কৃষ্ণ। এমনকী তাঁর গায়ে হাতও তোলা ‘হত।

উল্লেখ্য, হাওড়ার বালিতেও (Bally) প’রকীয়ার জেরে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। বালির আনন্দনগরের অনন্যা কর্মকার ও রিয়া কর্মকার নামে দুই গৃহবধূ গত পাঁচ দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন। ঘটনার ত’দন্তে নেমে পু’লিশ জানতে পারে, দুই রাজমিস্ত্রীর স’ঙ্গে গত ছ’মাস ধরে প্রেমের সম্পর্কে ছিলেন দু’জন। তাঁদের স’ঙ্গেই পালিয়েছেন। ঠিক কোথায় তাঁরা রয়েছেন তার খোঁজ করছে পু’লিশ। বিস্তারিত জানতে চলছে ত’দন্ত।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*