ডিভোর্স না নিয়ে নাসিরের বি’রু’দ্ধে তামিমাকে বিয়ের অ’ভিযোগ, শুনানি শেষে যা করল আ’দা’লত

টাইগার ক্রিকেটার নাসির হোসেন মোটামোটি গত প্রায় সারাটি বছর আলোচনায় ছিলেন তামিমাকে বিয়ে করার বিষয়টি নিয়ে। এদিকে আজ ডিভোর্স না নিয়ে অন্যের স্ত্রী’কে বিয়ে করার অ’ভিযোগের মা’ম’লায় ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তার স্ত্রী’ সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের কেবিন ক্রু তামিমা সুলতানা তাম্মীসহ তিনজনের বি’রু’দ্ধে অ’ভিযোগ গঠনের বিষয়ে আদেশের জন্য ৯ ফেব্রুয়ারি ধার্য করেছেন আ’দা’লত।

আজ সোমবার (২৪ জানুয়ারি) ঢাকার অ্যাডিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন এ দিন ধার্য করেন। অবশ্য আজ মা’ম’লা’টির অ’ভিযোগ গঠন শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। যদিও এই দুই জনের আইনজীবী মা’ম’লা থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেন। অ’পরদিকে আ’সা’মিপক্ষের আইনজীবী তাদের বি’রু’দ্ধে অ’ভিযোগ গঠন করতে শুনানি করেন।

আজকের শুনানিতে আ’সা’মিপক্ষের আইনজীবী কাজী নাজিবুল্লাহ হিরু বলেন, তামিমা যথাযথভাবে রাকিবকে তালাক দিয়েছেন। তা কার্যকরের বিষয় কাজী অফিসের। নাসিরের সঙ্গে যখন তামিমা’র বিয়ে হয় তখন কাবিননামায় তালাকপ্রাপ্ত লেখেন তামিমা। রাকিবকে তামিমা তালাক দিয়েছেন এটা তাদের ব্যাপার। এখানে সুমি আক্তারের (তামিম’রা মা) কোনো ভূমিকা নেই। তাই মা’ম’লার দায় হতে সবাইকে অব্যাহতির আবেদন জানাচ্ছি।

অ’পরদিকে শুনানিতে রাকিবের আইনজীবী ইশরাত হাসান বলেন, ডিভোর্সের পরেও তামিমা-রাকিব একসঙ্গে থেকেছেন। আইনে আছে যিনি তালাক দেবেন তিনি নোটিশ জারি করবেন। কিন্তু তামিমা নোটিশ জারি করেননি। রবং ভু’য়া কাগজপত্র দাখিল করেছেন। এছাড়াও তালাকের পর রাকিবের নাম ও পরিচয় ব্যবহার করেছেন তামিমা। এ বিষয়ে তামিমা’র মা সব জানতেন।

তাই আ’সা’মিদের বি’রু’দ্ধে অ’ভিযোগ গঠন করতে আবেদন জানাচ্ছি। উভ’য়পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক এ বিষয়ে আদেশের জন্য ৯ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*